গণিত অলিম্পিয়াড প্রস্তুতি : প্রাইমারি ক্যাটাগরি

প্রাপ্তিস্থান

দ্বিমিক প্রকাশনী
৩৭ নর্থ ব্রুক হল রোড, বাংলাবাজার, ঢাকা
কনকর্ড এম্পোরিয়াম, ২৫৩–২৫৪ এলিফ্যান্ট রোড, কাঁটাবন, ঢাকা।
অনলাইন এবং ফেসবুকে সারাদেশে হোম ডেলিভারি
ফোন: ০১৭০৭ ৯৬ ০৩ ৭২ (যোগাযোগ ও বিকাশ)

রকমারি ডট কম, ফোন: ১৬২৯৭
দারাজ ডট কম ডট বিডি, ফোন: ১৬৪৯২

ঢাকা
হক লাইব্রেরী, নীলক্ষেত, ঢাকা, ফোন: ০১৮২০-১৫৭১৮১
মানিক লাইব্রেরী, নীলক্ষেত, ঢাকা, ফোন: ০১৭৩৫-৭৪২৯০৮
রানা বুক পাবলিশার্স, নীলক্ষেত, ঢাকা, ফোন: ০১৬২৩-০৫৮৪২৮
বাতিঘর ঢাকা, বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র, বাংলামটর।

চট্টগ্রাম
বাতিঘর, প্রেস ক্লাব ভবন, জামালখান রোড, চট্টগ্রাম।

বরিশাল
বুক ভিলা, বিবিরপুকুর পাড়।

রাজশাহী
বুক পয়েন্ট, সোনাদীঘির মোড়, রাজশাহী।


ভূমিকা

২০২১ সাল, স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী, বাংলাদেশের জন্য অত্যন্ত গুরুত্ববহ একটা মাইলফলক। আর এই মাইলফলকে দাঁড়িয়ে আমরা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে বদ্ধপরিকর। সোনার বাংলা গড়তে হলে আমাদের শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞান, প্রযুক্তি গবেষণায় গোটা বিশ্বের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে হবে। আর সেজন্য দরকার মানসম্মত শিক্ষা ব্যবস্থা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে ঈর্ষণীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীরা এখন নতুন বই হাতে নিয়ে বছর শুরু করছে।

সেই সঙ্গে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে আমাদের প্রাথমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের ভাষাগত ও গাণিতিক উৎকর্ষতা অর্জনের লক্ষ্য নিয়ে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের বাস্তবায়নে বর্তমানে সারা দেশে ২ কোটি শিক্ষার্থীকে গণিত অলিম্পিয়াড কৌশলে গণিত শেখানোর জন্য একটি প্রকল্প চলমান আছে। ‘গণিত অলিম্পিয়াড প্রস্তুতি : প্রাইমারি ক্যাটাগরি’ বইটি প্রাথমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের গাণিতিক সমস্যা সমাধানের কৌশল নিয়ে লেখা। একদম শৈশবকাল থেকে সমস্যা সমাধানে দক্ষতা অর্জন করলে শিশুর মস্তিষ্ক তীক্ষ্ণ হবে। সেই সঙ্গে সে ভবিষ্যতের পৃথিবীর জন্য একজন আদর্শ নাগরিক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে পারবে।

আমি অত্যন্ত আনন্দিত এই বইটি আমার জনপদ মেহেরপুরের ছেলেমেয়েরা লিখেছে। বইটি প্রাথমিক শিক্ষাস্তরের শিক্ষার্থীদের গাণিতিক সমস্যা সমাধানের জন্য একটি সহায়ক পুস্তক হিসেবে আবির্ভূত হবে এবং গণিতকে শিক্ষার্থীদের নিকট আনন্দময় করে তুলতে ভূমিকা রাখবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করি। পরিশেষে বইটির সম্পাদকমণ্ডলী ও লেখকগণকে বইটির প্রকাশনা উপলক্ষ্যে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করছি।

অধ্যাপক ফরহাদ হোসেন এমপি
মাননীয় প্রতিমন্ত্রী
জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার

সূচিপত্র

  • ভূমিকা
  • লেখক পরিচিতি
  • অধ্যায় ০ – পূর্বকথা

প্রথম অংশ : সমস্যা সমাধান

  • অধ্যায় ১ – সংখ্যাতত্ত্ব
    • তুলনা
    • সংখ্যা
    • চার নিয়ম (যোগ, বিয়োগ, গুণ ও ভাগ)
    • ঐকিক নিয়ম, শতকরা, অনুপাত, লাভক্ষতি
    • গুণনীয়ক ও গুণিতক (ল.সা.গু., গ.সা.গু.)
    • পরিমাপ
    • ধারা ও প্যাটার্ন
    • বিবিধ
  • অধ্যায় ২ – জ্যামিতি

দ্বিতীয় অংশ : আলোচনা

  • অধ্যায় ৩ – সংখ্যাতত্ত্ব
    • বাস্তব সংখ্যা
    • বিভিন্ন রকমের পূর্ণসংখ্যা
    • বিভিন্ন প্রকারের ভগ্নাংশ
    • একটুখানি বীজগণিত
    • গুণনীয়ক ও গুণিতক
    • ফ্যাক্টরিয়াল
  • অধ্যায় ৪ – জ্যামিতি
    • কোণ
    • ক্ষেত্র
    • ঘনবস্তু
    • ত্রিভুজ
    • চতুর্ভুজ
    • বৃত্ত
    • সর্বসমতা ও সদৃশতা
    • পিথাগোরাসের উপপাদ্য

তৃতীয় অংশ : নিজে করি

  • অধ্যায় ৫ – অনুশীলনমূলক সমস্যা

বইয়ের বিবরণী

শিরোনামগণিত অলিম্পিয়াড প্রস্তুতি : প্রাইমারি ক্যাটাগরি
লেখকআবির শাফী বিন্দু, মো. আল-আমিন (আশিক)
ক্যাটাগরিগণিত অলিম্পিয়াড
ISBN978-984-8042-14-4
সংস্করণপ্রথম প্রকাশ, জানুয়ারি ২০২১
পৃষ্ঠাসংখ্যা১৮৮
কভার মূল্য৩০০/- টাকা

লেখক পরিচিতি

আবির শাফী বিন্দু : ১৯৯৪ সালের ২ আগস্ট মেহেরপুরের গাংনীতে জন্ম ও বেড়ে ওঠা। বাবা এ.কে.এম শফিকুল আলম পেশায় আইনজীবী হলেও এলাকার সামাজিক ও সাংস্কৃতিক পরিমণ্ডলের খুব পরিচিত মুখ। মা শাহনাজ পারভিন কবিতা স্নাতক সম্পন্ন করেও সন্তানদের সুশিক্ষায় গড়ে তোলার ব্রত নিয়ে কোনো চাকরি করেননি। গাংনী প্রি-ক্যাডেট অ্যান্ড জুনিয়র স্কুলে হাতেখড়ি। গাংনী পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে মাধ্যমিক ও নটরডেম কলেজে উচ্চ মাধ্যমিক সম্পন্ন করে উচ্চশিক্ষার লক্ষ্যে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (BUET)-এ ভর্তি হওয়া। কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (CSE) বিভাগে স্নাতক শেষে লেখকের কর্মজীবন শুরু হয় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের গণিত অলিম্পিয়াড প্রকল্পে। বর্তমান অবস্থান ঢাকা ইলেকট্রিক সাপ্লাই কোম্পানি লিমিটেডে (ডেসকো)। স্কুল ও কলেজ-জীবনে একাধিকবার গণিত অলিম্পিয়াডের আঞ্চলিক ও জাতীয় পর্যায়ে পুরস্কৃত হয়েছেন। বর্তমানে বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটির একাডেমিক কাউন্সিলর পদে কর্মরত। কাজ করেছেন গাংনী গণিত পরিবারের পরিচালক, বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটির ক্লাব সমন্বয়ক এবং অনুরণন : BUET Math Club-এর সাধারণ সম্পাদক হিসেবে।

মো. আল-আমিন (আশিক) : মো. আশরাফুল আলম ও মোছা. আতিকা বানুর প্রথম সন্তান। জন্ম মাতুলালয়ে। বেড়ে ওঠা সেখানেই। সেখান থেকেই প্রাথমিকের গণ্ডি পেরিয়ে গাংনীতে আসা। গাংনী পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক আর ক্যান্টনমেন্ট কলেজ, যশোর থেকে উচ্চমাধ্যমিক সম্পন্ন করেন। এরপর খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (কুয়েট) থেকে পুরকৌশলে স্নাতক সম্পন্ন করেন। উচ্চমাধ্যমিকের সময়ই গাংনী গণিত পরিবারের পথ চলার শুরুতে একজন ছিলেন। ২০১৬-১৭ মেয়াদে পালন করেছেন গাংনী গণিত পরিবারের পরিচালকের দায়িত্ব।

শাহরিয়ার নাঈম শাইখ : মো. নজরুল ইসলাম ও রেবেকা সুলতানার কনিষ্ঠ সন্তান। গাংনী গণিত পরিবার অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি হিসেবে কাজ করছেন। বর্তমানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের লেদার ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের মাস্টার্সে অধ্যয়নরত। কোমলমতি শিক্ষার্থীদের গণিতের মৌলিক বিষয়বস্তুগুলোকে সহজবোধ্য করার উদ্দেশ্যেই এই বইটির লেখক পর্ষদের সঙ্গে যুক্ত থাকা।

তাসনোভা মুর্শিদ : মনজুর মুর্শিদ ও লাইলা শামীমা ইভার একমাত্র কন্যা। ব্যাচেলর অব ডেন্টাল সার্জারিতে অধ্যয়নরত, উদয়ন ডেন্টাল কলেজ, রাজশাহী। আঞ্চলিক গণিত উৎসবের মেডেলিস্ট ছিলেন। অংশগ্রহণের পালা শেষে এখন কাজ করছেন সংগঠক হিসেবে। সফলভাবে দায়িত্ব পালন করেছেন গাংনী গণিত পরিবারের সভাপতি হিসেবে। তিনি বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াডের একজন একাডেমিক সদস্য।

আদিত্য শাফী চন্দ্র : এ.কে.এম. শফিকুল আলম ও শাহনাজ পারভিনের ছোটো ছেলে চন্দ্র। বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সী আব্দুর রউফ পাবলিক কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক সম্পন্ন করেছেন। এ পর্যন্ত তিনি তিনবার আঞ্চলিক গণিত উৎসবে পুরস্কৃত হয়েছেন। বর্তমানে গাংনী গণিত পরিবারের একজন মেনটর হিসেবে কাজ করছেন নিজ এলাকায় গণিতচর্চার প্রসারে। ছোটোবেলা থেকেই গণিতের প্রতি আলাদা এক ভালোবাসাই তাকে বইটি লিখতে উদ্বুদ্ধ করেছে।

ছাবিকুন নেহা : মোহা. আব্দুস সামাদ ও মোছা. মনিরা পারভীনের কনিষ্ঠ কন্যা নেহা। মাধ্যমিক শেষ করে বর্তমানে আদমজী ক্যান্টনমেন্ট কলেজে দ্বাদশ শ্রেণিতে অধ্যয়নরত। ছোটোবেলা থেকেই ভালোবাসেন গণিতের সমস্যা সমাধান করতে। সে সূত্রেই গণিত অলিম্পিয়াডের পরিবেশে যাওয়া। মেডেল পেয়েছেন আঞ্চলিক গণিত অলিম্পিয়াডে। গাংনী গণিত পরিবারের একাডেমিক টিমে কাজ করছেন সক্রিয়ভাবে, একজন জুনিয়র মেনটর হিসেবে।

ওয়াসি উল হাবীব : মো. আহসান হাবীব ও মোছা. শাহীনা আক্তারের বড়ো সন্তান। বর্তমানে ঢাকা কলেজে একাদশ শ্রেণিতে অধ্যয়নরত। আঞ্চলিক গণিত অলিম্পিয়াডের মেডেলিস্ট। কাজ করছেন গাংনী গণিত পরিবারের জুনিয়র মেনটর হিসেবে। অবসরে ফিকশনাল বই পড়তে, সিনেমা দেখতে, বন্ধুদের সঙ্গে সময় কাটাতে এবং গণিতের বিভিন্ন মজার সমস্যা নিয়ে ভাবতে পছন্দ করেন।

তানভির আহমেদ অভি : এম এ লিংকন ও শাহমীন আক্তারের সন্তান। ঢাকা সিটি কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্র। আঞ্চলিক গণিত অলিম্পিয়াডের মেডেলিস্ট। গাংনী গণিত পরিবারের একজন সক্রিয় সদস্য। বরাবরই গণিতের সমস্যার সমাধান করতে এবং গণিত অলিম্পিয়াডে অংশগ্রহণ করতে ভালোবাসেন। দেশ ভ্রমণ করতে ভালো লাগে। গণিতের প্রতি ভালোবাসাই তাকে বইটি লিখতে উদ্বুদ্ধ করেছে।

ইসরাত জাহান ইভা : মো. আসাদুল আলম খোকন ও মোছা. রাশিদা আলমের কন্যা। বর্তমানে রাজউক উত্তরা মডেল কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্রী। কুষ্টিয়া আঞ্চলিক গণিত অলিম্পিয়াডের চ্যাম্পিয়ন ছিলেন। পড়ালেখার পাশাপাশি ভালোবাসেন ছবি আঁকতে, বই পড়তে, লেখালেখি করতে। অবসর সময়ে চলে গণিতচর্চা। গণিত নিয়ে ভালো লাগা বরাবরই, সেই আগ্রহ থেকেই এই বই লেখা।

কানিজ ফাতেমা বুশরা : মো. বজলুর রহমান ও শোভা রহমানের কন্যা। বর্তমানে, গাংনী সরকারি ডিগ্রি কলেজে একাদশ শ্রেণিতে অধ্যয়নরত। জেলা পর্যায়ে গণিত উৎসবের বিজয়ী। গাংনী গণিত পরিবারের একজন দায়িত্বশীল জুনিয়র মেনটর। তিনি নিজে একজন গণিতপ্রেমী এবং চান তার ছোটোরাও গণিতপ্রেমী হয়ে উঠুক – সেই উদ্দেশ্যেই এই বই লেখা। এছাড়াও তিনি বিভিন্ন ধরনের সায়েন্স ফিকশন বই পড়তে এবং লেখালেখি করতে ভালোবাসেন।

Comments

comments